> কম্পিউটারের বাজার মূল্য ~ পিসি বাংলাদেশ

কম্পিউটারের বাজার মূল্য



কম্পিউটার কেনার আগে অনেকেই এর কনফিগারেশন নির্বাচন নিয়ে চিন্তায় পড়ে যান।তাই পিসি বাংলাদেশ এর পক্ষ থেকে  নিচে আপনার জন্য কিছু পয়েন্ট এবং  কম্পিউটারের বাজার মূল্য   তুলে ধরা হলঃ


pcbangladesh



●Brand:  প্রথমেই আপনাকে ঠিক করতে হবে আপনি কোন ব্র্যান্ডের  পিসি কিনবেন?  ব্র্যান্ড পিসি হল জনপ্রিয় কোন ব্র্যান্ডের ডেস্কটপ যেগুলোর একটি মডেল নাম্বার থাকে এবং কনফিগারেশন পরিবর্তন করা যায়না। আর কাস্টম পিসি হল আপনার চাহিদা অনুযায়ী কনফিগারেশন ঠিক করে দিয়ে কিনতে পারবেন। ব্রান্ড পিসির দাম বেশি কিন্তু সার্ভিস অনেক ভাল আর কাস্টম বা ক্লোন পিসির মূল্য কম আর নিজের কনফিগারেশন অনুযায়ী তৈরি করে নেয়া যায়। 

 কম্পিউটারের বাজার মূল্য 

ক্লোন পিসির জন্য প্রয়োজনীয় কম্পিউটার যন্ত্রাংশের দাম এবং কম্পিউটারের বাজার মূল্য  নিচে আলোচনা করা হল-

●Processor:  কম্পিউটার কেনার কথা চিন্তা করলে প্রথমেই আপনাকে প্রসেসর ঠিক করতে হবে। সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং প্রচলিত প্রসেসর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হল ইনটেল। এদের প্রসেসরই বাজারে সবচেয়ে বেশি দেখা যায়। আর এএমডি প্রসেসর মানের দিক থেকে অনেক ভাল এবং মূল্য সাশ্রয়ী। প্রসেসরের মূল্য সাধারণত ২,০০০ থেকে ৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত।



●Motherboard:  মাদারবোর্ড কেনার আগে প্রথমেই আপনাকে লক্ষ্য করতে হবে মাদারবোর্ডটি কোন কোন মডেলের প্রসেসর এবং সর্বোচ্চ কত গিগাবাইট র‍্যাম সাপোর্ট করে। আপনার প্রসেসর এবং র‍্যামের সাথে মিল রেখেই একটি মাদারবোর্ড নির্বাচন করুন। মাদারবোর্ডে হার্ড ডিস্কের জন্য কতগুলো পোর্ট আছে সেটি দেখে নিন। যত বেশি পোর্ট থাকবে ততই আপনার জন্য ভালো। এছাড়াও ইউএসবি পোর্ট কতগুলো আছে সেটিও খেয়াল রাখুন। বাজারে আসা সর্বশেষ মডেলগুলো থেকে যেকোনো একটি মডেলের মাদারবোর্ড নির্বাচন করার চেষ্টা করুন।






●Ram:  কম্পিউটারে র‍্যাম যত বেশি হবে তত ভালো। বাজারে ২ গিগাবাইট থেকে শুরু করে ৮, ১৬ এমনকি ৩২ গিগাবাইটের র‍্যামও পাওয়া যায়। আপনার কাজের ধরন অনুযায়ী যেকোনো ক্যাপাসিটির একটি র‍্যাম নির্বাচন করুন। মনে রাখবেন র‍্যামের বাস ফ্রিকোয়েন্সি যত বেশি হবে, র‍্যামের কার্যক্ষমতাও তত বেশি দ্রুত গতির হবে।


●Storage:  স্টোরেজ সাধারণত ২ ধরনের হয়। এসএসডি এবং হার্ডডিস্ক। বর্তমানে বাজারে ১৬০ গিগাবাইট থেকে শুরু করে ৩ টেরাবাইটের স্টোরেজও পাওয়া যায়।

• এসএসডি- এসএসডি মূলত কম্পিউটারের একধরনের ফ্ল্যাশ স্টোরেজ ব্যবস্থা। যার মূল কাজ হল তথ্য সংরক্ষণ করে রাখা। ওজনে হালকা এবং আকারে ছোট হওয়ায় দিন দিন এই এসএসডির জনপ্রিয়তা ক্রমেই বেড়ে চলেছে এবং হার্ড ড্রাইভ এর প্রচলন কমে আসছে। এসএসডিতে হার্ড ড্রাইভের মত কোন ডিস্ক থাকে না। এতে কয়েকটি ইলেকট্রিক চিপ থাকে যা ডাটা সংরক্ষনের কাজটি করে। এই এসএসডি স্টোরেজ ব্যবস্থা হার্ড ড্রাইভ এর তুলনায় অনেক দ্রুত কাজ করে। কয়েক মাইক্রো সেকেন্ডের মধ্যে এর থেকে ডাটা পাওয়া যায় যা হার্ড ডিস্কের করতে কয়েক মিলি সেকেন্ড সময় লেগে যায়। PCIe x4 এসএসডি প্রচলিত সাটা ড্রাইভ থেকে ৩ গুন দ্রুত। ইএমএমসি মেমরিগুলো টেকনিক্যালি এসএসডি হলেও তা হার্ড ডিস্কের চেয়ে দ্রুত না। আপনার বাজেট বেশি হলে এসএসডি স্টোরেজ কেনার চেষ্টা করুন। তবে হার্ডডিস্ক এর তুলনায় এসএসডি কিছুটা ব্যায়বহুল। 

• এইচডিডি- হার্ড ডিস্ক বর্তমানে ২৫০ জিবি থেকে ২ টেরাবাইট পর্যন্ত পাওয়া যায়। এক্ষেত্রে আপনার চাহিদা অনুযায়ী হার্ডডিস্ক নিন। আপনার যদি বেশি ডাটা ব্যাকআপ রাখার প্রয়োজন হয় তাহলে ৭৫০ জিবি কিংবা ২ টেরাবাইট এর হার্ডডিস্ক নিতে পারেন। নাহলে ৫০০ জিবি হার্ডডিস্কই যথেষ্ট। হার্ডডিস্ক নির্ধারণ করার সময় এর আরপিএম ভালো করে দেখে নিন। আরপিএম যত বেশি হবে ফাইল ট্রান্সফার এর গতি তত বেশি হবে।

●Graphics Card:  ইন্টারনেট ব্রাউজিং, গান শোনা কিংবা মুভি দেখা এসকল সাধারন কাজের জন্য কম্পিউটারে আলাদা গ্রাফিক্স কার্ডের প্রয়োজন নেই। বিল্ট-ইন গ্রাফিক্স ই যথেষ্ট। তবে ছবি-ভিডিও এডিটিং কিংবা গেমিং করতে চাইলে আলাদা ডেডিকেটেড গ্রাফিক্স কার্ড নিতে হবে। এক্ষেত্রে আপনার মাদারবোর্ড এবং প্রসেসরের সাথে সামঞ্জস্য রেখে একটি গ্রাফিক্স কার্ড নির্বাচন করুন। তবে গ্রাফিক্স কার্ডের সাথে সাথে কুলিং সিস্টেমের ব্যাপারটিও লক্ষ্য রাখবেন। কেননা পর্যাপ্ত কুলিং সিস্টেম না থাকলে অতিরিক্ত গরম হয়ে গ্রাফিক্স কার্ড পুড়ে যেতে পারে।


●Casing:  বর্তমানে বাজারে বেশ কিছু গেমিং কেসিং পাওয়া যাচ্ছে যেগুলো খুবই দৃষ্টিনন্দন এবং বিভিন্ন রঙের লাইটিং থাকে। আপনার পছন্দ অনুযায়ী একটি নির্বাচন করুন। তবে পাওয়ার সাপ্লাই বেশি থাকলে ভালো, যদি ভবিষ্যতে এক্সটারনাল গ্রাফিক্স কার্ড কিংবা সাউন্ড কার্ড ব্যবহারের প্রয়োজন পড়ে।



21 comments:

আমি কম্পিউটার কিনতে চাই।তবে কোন টা কিনলে ভালো হবে। আমি প্রসেসর ও মাদারবোর্ড। ্ram কোনটা কিনব।আর দাম বেশি দেওয়া আছে যদি সঠিক দাম জানান

ল্যাপটপের দাম জানতে চাই

অলইনওয়ান কম্পিউটারের দাম কত হতে পারে?

ইনটেল কোর আই৫ এর দাম কতো

আমি অফিসের কাজের জন্যে সাধারনত কেমন দামের লেফটপ কিনতে পারি?

২৫০০০হাজারের মধ্যে কেমন কম্পিউটার পাওয়া যাবে

সর্বনিম্ন কত হাজারের মধ্যে একটা ডেস্কটপের যাবতীয় সব পেতে পারি?

১২০০০ টাকার মধ্যে কোন ডেস্কটপ
কম্পিউটার পাওয়া যাবে কি?

আমি গ্রাফিক্স ডিজাইন করার জন্য । কম্পিউটার বানাতে চাই কেমন ও কি কি দাম লাগব

আমি ৩৫,০০০ টাকার মধ্যে কোন ব্রান্ডের পিসি এবং মনিটর ক্রয় করতে পারবো....?

আমি ২০,০০০ টাকার মধ্যে কোন ব্রান্ডের পিসি পাওয়া যাবে...?

ভাই এটাকি আপডেট থাকে সবসময় ?আজকে হল oct-10-2020.

Get Blogger TipsComment here

No Spam Link is Allowed